দুই দশকে সর্বোচ্চ ডলার, রুপির রেকর্ড দরপতন

যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ সুদের হার বাড়ানোর পর থেকেই আন্তর্জাতিক বাজারে অব্যাহতভাবে বেড়ে চলেছে ডলারের দাম। গতকাল সোমবার আবারও অন্যান্য মুদ্রার বিপরীতে ডলারের দাম বেড়ে দুই দশকে সর্বোচ্চ হওয়ার কাছাকাছি হয়েছে।

বাজারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, বিশ্ব অর্থনীতি মন্দার দিকে যাচ্ছে এমন আশঙ্কার পাশাপাশি ফের আবারও সুদের হার বাড়াচ্ছে—এমন খবরে বেড়েছে ডলারের দাম। নিরাপদ বিনিয়োগ হিসেবে সবাই এখন এ খাতে বিনিয়োগে ছুটছে।

গতকাল আন্তর্জাতিক ছয়টি মুদ্রার বিপরীতে ডলারের দাম ০.৫ শতাংশ বেড়ে হয় ১০৪.৭৫, যা ১৯৯৮ সালের পর থেকে সর্বোচ্চ দর হওয়ার কাছাকাছি। ডলারের বিপরীতে ইউরো, স্টার্লিং এবং সুইস ফ্রাঁর দাম কমে চার সপ্তাহে সর্বনিম্ন হয়।

গতকাল সবচেয়ে বেশি দরপতন হয় জাপানি মুদ্রা ইয়েনের। গত মার্চ থেকে ডলারের বিপরীতে ইয়েনের দাম পড়েছে ১৫ শতাংশের বেশি। এর পাশাপাশি ভারতীয় মুদ্রা রুপিরও রেকর্ড দরপতন হয়। এ ছাড়া ক্রিপ্টোমুদ্রা বিটকয়েনের দাম ৯ শতাংশ কমে ১৮ মাসে সর্বনিম্ন হয়। দাম কমে হয় প্রায় ২৪ হাজার ডলার। ফেডারেল রিজার্ভ ও ব্যাংক অব ইংল্যান্ড তাদের আগামী বৈঠকে সুদের হার বাড়াবে বলে আশা করা হচ্ছে। এর পাশাপাশি সুইস ন্যাশনাল ব্যাংকও সুদের হার বাড়াতে পারে, এমন সম্ভাবনা রয়েছে। এসব কারণেই ডলার ক্রমাগত শক্তিশালী হচ্ছে।

রুপির রেকর্ড দরপতন : ভারতে মূল্যস্ফীতির পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের সুদের হার বাড়ানোর সম্ভাবনায় রুপির রেকর্ড দরপতন হয়েছে। গতকাল সোমবার শেয়ারবাজার খোলার পর ৩৬ পয়সা কমে ডলারের তুলনায় রুপির দাম। এক ডলার এখন ৭৮.২৯ রুপি।    ভারতের বিদেশি মুদ্রার ব্যবসায়ীরা বলছেন, এশিয়ার দেশগুলোর মুদ্রা দিন দিন দুর্বল হয়ে পড়ছে। আন্ত ব্যাংক বিদেশি এক্সচেঞ্জে এদিন ডলারের দাম প্রথমে ছিল ৭৮.২০ রুপি। সূত্র : এএফপি, ইনডিয়ান এক্সপ্রেস

সূত্র: কালেরকন্ঠ

সর্বশেষ