দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনায় এক অনন্য উত্তরাধিকারের দৃষ্টান্ত শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনায় এক অনন্য উত্তরাধিকারের দৃষ্টান্ত শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

 

‍‍‍‍দুবাই ১১ ডিসেম্বর ২০২১ :

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে চলমান World EXPO 2020 এর অংশ হিসেবে বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে আজ(শনিবার) দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক একটি সেমিনার আয়োজন করা হয়।

সেমিনারের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল “শেখ মুজিব থেকে শেখ হাসিনা: বাংলাদেশে দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনায় এক অনন্য উত্তরাধিকারের দৃষ্টান্ত” । দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: মোহসীনের সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা: মো: এনামুর রহমান, এমপি এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন UAE তে নিযু্ক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো: আবু জাফর ।

সেমিনারে কি-নোট পেপার উপস্থাপন করেন বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর এবং ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি)’র সূচনালগ্নের পরিচালক মুহাম্মাদ সাইদুর রহমান । প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী বলেন বাংলাদেশ একটি দুর্যোগ প্রবণ দেশ । জলবায়ু পরিবর্তন জনিত কারণে বিশ্বে ক্ষতিগ্রস্থ দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম ।

স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে বঙ্গবন্ধু সরকার কর্তৃক সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা গ্রহণ,সিপিপি গঠনের মাধ্যমে এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দুর্যোগ মোকাবিলায় দেশব্যাপী বিভিন্ন কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে বাংলাদেশ একটি দুর্যোগ সহনীয় রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে ।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় রাষ্ট্রদূত দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার সাফল্যকে পৃথিবীর বুকে একটি রোল মডেল বলে আখ্যা দেন। কি-নোট পেপার উপস্থাপনায় সাইদুর রহমান বঙ্গবন্ধুর দর্শন, সুদূরপ্রসারী দুর্যোগ মোকাবেলায় ধারণা এবং জনগণের প্রতি প্রতিশ্রুতিশীল উল্লেখপূর্বক সিপিপির ভূমিকা তুলে ধরেন।

সভাপতির বক্তৃতায় সচিব বলেন, বঙ্গবন্ধু ৫০ বছর পূর্বে দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাসে প্রকৃত ধারণা প্রতিষ্ঠিত করেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে তাঁর সুযোগ্য কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাসে সুদৃঢ় পদক্ষেপ গ্রহণ করে দুর্যোগ সহনীয় বাংলাদেশ বিনির্মানে সর্বোচ্চ আত্ননিয়োগ করে যাচ্ছেন।

তিনি বলেন,বাংলাদেশ LDC থেকে উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে উত্তরণের ক্ষেত্রে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় যুগান্তকারী সাফল্য ও অসামান্য ভূমিকা রেখেছে । সেমিনারে বাংলাদেশ সরকারের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা, দেশ-বিদেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, এনজিও, দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দূতাবাসের কূটনীতিকবৃন্দ এবং বাংলাদেশের কমিউনিটির গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ