উড়ন্ত পাকিস্তানকে হারিয়ে ফাইনালে অস্ট্রেলিয়া

0
40

আকাশ দাশ/ক্রীড়া প্রতিবেদকঃ আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে শক্তিশালী পাকিস্তানের বিপক্ষে ৫ উইকেটে জয় পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনারের ব্যাটে দারুণ সূচনা পায় টুর্নামেন্টের এখন পর্যন্ত অপরাজিত দল পাকিস্তান। তবে ব্যক্তিগত ৩৯ রানের মাথায় পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজমকে ফিরিয়ে অজিদের প্রথম সাফল্য এনে দেন লেগি অ্যাডাম জম্পা। বাবরের বিদায়ে তিনে ব্যাট করতে নামা ফখর জামানকে সঙ্গী করে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ৭২ রান তুলেন অন্য ওপেনার মোহাম্মদ রিজওয়ান। তবে ৫২ বলে ৩টি চার এবং ৪টি বিশাল ছক্কায় ব্যক্তিগত ৬৭ রানের মাথায় রিজওয়ানকে ফিরিয়ে ভয়ঙ্কর এই জুটি ভাঙেন অজি পেসার মিচেল স্টার্ক।

রিজওয়ানের বিদায়ে দ্রুত বিদায় নেন আসিফ আলি এবং শোয়েব মালিক। অজি পেসার প্যাট কামিন্সের বলে গোল্ডেন ডাক মেরে ফিরেন আসিফ অন্যদিকে মিচেল স্টার্কের দ্বিতীয় শিকার হয়ে শোয়েব মালিক ফিরেন ১ রান করে। তবে ৩২ বলে ৩টি চার এবং ৪টি ছক্কায় তিনে ব্যাট করতে নামা ফখর জামানের ৫৫ রানের অপরাজিত ইনিংসের সাহায্যে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৭৬ রানের বড় সংগ্রহ পায় পাকিস্তান। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে মিচেল স্টার্ক নেন ২টি উইকেট উইকেট একটি করে উইকেট নেন অ্যাডাম জম্পা এবং প্যাট কামিন্স।

পাকিস্তানের দেওয়া বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দলীয় ১ রানের মাথায় শাহিন আফ্রিদির শিকার হয়ে ফিরে অজি ওপেনার অ্যারণ ফিঞ্চ। ফিঞ্চের বিদায়ে তিনে ব্যাট করতে নেমে অন্য ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারকে সঙ্গী করে দ্বিতীয় উইকেটে ৫১ রানের জুটি গড়েন মিচেল মার্শ। তবে ব্যক্তিগত ২৮ রানের মাথায় মার্শকে ফিরিয়ে অজিদের সেই জুটি আর বড় হতে দেননি পাকিস্তানি লেগি শাদাব খান। মার্শের বিদায়ে দ্রুত বিদায় নেন অভিজ্ঞ স্টিভ স্মিথ শাদাব খানের দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফিরেন ৪ রান করে।

স্মিথের বিদায়ে ৩টি করে চার-ছয়ে ৩০ বলে ৪৯ রান করে ফিরেন ওপেনার ডেডিভ ওয়ার্নার। ওয়ার্নারের বিদায়ে এইদিন উইকেটে থিতু হতে পারেনি গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ফিরেন ৭ রান করে। তবে ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে মার্কাস স্টয়নিস এবং ম্যাথু ওয়েডের ৮১ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে ৫ উইকেট এবং ৬ বল হাতে রেখে ফাইনাল নিশ্চিত করে অস্ট্রেলিয়া। মাত্র ১৭ বলে ২টি চার আর ৪টি বিশাল ছক্কায় ৪১ রান আসে ওয়েডের ব্যাট থেকে। ওয়েডকে যোগ্য সঙ্গ দেওয়া স্টয়নিসের ব্যাট থেকে আসে ৩১ বলে ২টি করে চার-ছয়ে ৪০ রান। পাকিস্তানের হয়ে শাদাব খান একাই শিকার করেন ৪টি উইকেট অন্য উইকেটটি নেন শাহিন আফ্রিদি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here