Spread the love

বাংলাদেশে ভাইবার লেন্স নিয়ে এলো রাকুতেন ভাইবার

 

ঢাকা, ১৪ অক্টোবর, ২০২১:

 

ইন-অ্যাপ ক্যামেরায় অগমেন্টেড রিয়েলিটি (এআর), বাংলাদেশে ভাইবার লেন্স নিয়ে এলো রাকুতেন ভাইবার।

নতুন ভাইবার লেন্সের সাথে চ্যাটিং হবে আরও উপভোগ্য।

বিনামূল্যে এবং সহজে যোগাযোগের জন্য বিশ্বের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় অ্যাপ রাকুতেন ভাইবার, সম্প্রতি, দেশে চালু করেছে ভাইবার লেন্স। ইন-অ্যাপ ক্যামেরায় অগমেন্টেড রিয়েলিটি’র (এআর) এই ফিচারটি প্রিয়জন, বন্ধু-বান্ধব ও সহকর্মীদের সাথে প্রতিদিনের কথোপকথনে নতুন মাত্রা যোগ করবে। বাংলাদেশের ব্যবহারকারীরা এখন ভাইবার লেন্স ব্যবহার করে নিয়মিত কথোপকথনকে আরও উপভোগ্য ও বিনোদনমূলক করে তুলতে পারবেন।

ভাইবার লেন্সের প্রথম ব্যাচের সাথে ইন-অ্যাপ ক্যামেরায় অগমেন্টেড রিয়েলিটির উপযোগিতা যুক্ত করতে স্ন্যাপ ইনকর্পোরেশনের সাথে অংশীদারিত্ব করছে রাকুতেন ভাইবার। এই ফিচারে ৩০টিরও বেশি আকর্ষণীয় ফিল্টার রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে অ্যানিমেল মাস্ক, ফ্যান্টাসি ইফেক্ট এবং ব্যবহারকারীদের পছন্দের ভাইবার ক্যারেক্টার। ব্যবহারকারীরা ভাইবার ক্যামেরা চালু করার পর পছন্দের ফিল্টার বাছাই করে ছবি তুলে তাৎক্ষণিকভাবে তা পাঠানোর মাধ্যমে কথোপকথনকে আরও উপভোগ্য করে তুলতে পারবেন। লেন্সের মাধ্যমে স্ক্রিনে প্রদর্শিত স্টিকার যুক্ত করে বা রঙ পাল্টে কাস্টোমাইজ করার সুযোগও পাবেন ব্যবহারকারীরা।

এছাড়াও, বিভিন্ন পার্টনার যেমন- বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ডলাইফ ফান্ড ও এফসি বার্সেলোনা ইত্যাদির ব্র্যান্ড লেন্স ব্যবহার করে ব্যবহারকারীরা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, সমস্যা এবং তাদের পছন্দের স্পোর্টস টিমের প্রতি সমর্থন প্রকাশ করতে পারবেন। ব্যবহারকারীদের নিজেদের প্রকাশ করার জন্য অসংখ্য বিকল্প প্রদানের রাকুতেন ভাইবারের লক্ষ্য নিশ্চিত করতে, এটি প্রতি মাসে কমপক্ষে বিশটি অতিরিক্ত লেন্স যুক্ত করার পরিকল্পনা করছে। বাংলাদেশের ভাইবার ব্যবহারকারীরা এখন তাদের কথোপকথনে লেন্স যুক্ত করে আরও উপভোগ্য উপায়ে প্রিয়জনদের সাথে চ্যাট করতে পারবেন।

রাকুতেন ভাইবারের চিফ গ্রোথ অফিসার আনা জামেনস্কায়া বলেন, “নতুন ভাইবার লেন্স চালুর মাধ্যমে আমরা এআর –কে নতুন উচ্চতায় নিয়ে গেছি। চলমান বৈশ্বিক মহামারির কারণে আমাদের যেসব ব্যবহারকারীরা পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন, তারা আরও উন্নত উপায়ে পরিবারের সাথে যোগাযোগ এবং স্মরণীয় মুহূর্তগুলো ভাগ করে নিতে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন।” তিনি আরও বলেন, “ভাইবার লেন্স অনন্য উপায়ে কল্পনাকে বাস্তবে পরিণত করে। আমরা বিশ্বাস করি, এটি ভবিষ্যতে আমাদের পণ্যগুলোতে উদ্ভাবনী এবং চমকপ্রদ নতুন কিছু যুক্ত করতে উৎসাহিত করবে।”

রাকুতেন ভাইবার এপিএসি’র সিনিয়র ডিরেক্টর ডেভিড সে বলেন, “ভাইবার লেন্স এমন একটি ব্যতিক্রমী ফিচার, যা ব্যবহারকারীদের আরও সৃজনশীল, উপভোগ্য এবং প্রাণবন্ত কথোপকথনে সহায়তা করবে। অ্যাপের মাধ্যমে পাঠানো মেসেজ, ভিডিও এবং ছবির সুরক্ষা নিশ্চিত করতে আমাদের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ভাইবার লেন্সে সবচেয়ে উন্নত এআর সক্ষমতা অন্তর্ভুক্ত করেছি। এছাড়া, আমরা আমাদের বাংলাদেশি ব্যবহারকারীদের জন্য বিশেষ স্থানীয় লেন্স চালু করার কথা ভাবছি। বাংলাদেশের ব্যবহারকারীদের জন্য এসব ফিচার আনতে পেরে এবং আরও সৃজনশীল উপায়ে তাদের চিন্তাভাবনা এবং অনুভূতি প্রকাশ করার সুযোগ করে দিতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত।”