Spread the love

নবায়নযোগ্য জ্বালানির প্রসারে বাংলাদেশ দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহণ করছে :  বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

 

ঢাকা ১৪ অক্টোবর ২০২১ :

 

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, নবায়নযোগ্য জ্বালানির প্রসারে বাংলাদেশ দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহণ করছে। নবায়নযোগ্য জ্বালানি নীতিমালা বাস্তবায়নে বছরভিত্তিক পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে।  ২০৩০ সাল পর্যন্ত নবায়নযোগ্য জ্বালানি হতে বিদ্যুৎ উৎপাদনের রোডম্যাপ করা হয়েছে।

 

প্রতিমন্ত্রীর সাথে ১৩ অক্টোবর সচিবালয়ে Cop 26 Regional Ambassador for the Asia- Pacific and South Asia কেন ‘ও’ ফ্লাহারটি (Ken ‘o’ Flaherty)-এর সাক্ষাৎকালে এসব কথা বলেন। সাক্ষাৎকালে ক্লিন পাওয়ার ও এনার্জির দিকে অগ্রসর হওয়ার বিকল্প, জ্বালানি পরিবর্তন সংক্রান্ত বিনিয়োগ, নাবায়নযোগ্য জ্বালানির অংশ বৃদ্ধি, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করা হয়।

 

প্রতিমন্ত্রী এ সময় বলেন, কার্বনের নিঃসরণ শূন্যের কোঠায় নেয়াকে সমর্থন করে বাংলাদেশ পরিকল্পনা মাফিক কাজ করছে।  ইলেকট্রনিক ভিহাইকেল ব্যবহার সংক্রান্ত নীতিমালা করা হচ্ছে। সৌর বিদ্যুৎ প্রসারে প্রচুর অকৃষি ভূমি প্রয়োজন; যা বাংলাদেশের মতো ঘনবসতি এলাকায় অত্যন্ত দুরূহ। বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ ও বায়ু বিদ্যুৎ নিয়েও কাজ হচ্ছে। ভারত থেকে সৌরবিদ্যুৎ এবং নেপাল ও ভুটান থেকে জলবিদ্যুৎ আনার পরিকল্পনা রয়েছে।  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্লাইমেট ভারনারেবল ফোরামের সভাপতি হওয়ায় নবায়নযোগ্য জ্বালানির প্রসারে বাংলাদেশ প্রতিনিয়ত অ্যাডভোকেসি করছে।

 

প্রতিমন্ত্রী এ সময় বলেন, প্রতিবেশী দেশসমূহের সহযোগিতা বৃদ্ধিতে কোপ ২৬ (Cop 26) অবদান রাখতে পারে।

 

এ সময় অন্যান্যের মাঝে বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাজ্যের হাইকমিশনার রাবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন (Robert Chatterton Dickson)  উপস্থিত ছিলেন।