Spread the love

তুরস্ক এবং বাংলাদেশের সম্পর্ক দৃঢ় : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সচিব

 

ঢাকা ১১ অক্টোবর ২০২১ :

 

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সচিব খাজা মিয়া বলেছেন, বাংলাদেশ তুরস্কের সঙ্গে দক্ষতা, অভিজ্ঞতা, অংশীদারিত্ব গড়ে তোলা এবং শিক্ষা ক্ষেত্রে সহযোগিতা বিনিময় করতে আগ্রহী। বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের অধিক সংখ্যক বৃত্তি প্রদানের জন্য তুরস্ক কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেন তিনি।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সচিব সাম্প্রতিক সময়ে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হকের তুরস্ক সফর সম্পর্কে এসব কথা বলেন।

সচিব মনে করেন, তুরস্ক বাংলাদেশকে প্রযুক্তিগত উন্নত শিক্ষা উপকরণ এবং বিশ্বখ্যাত বুদ্ধিবৃত্তিক বই প্রদান করতে পারে। তিনি বাংলাদেশ এবং তুরস্কের মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক উষ্ণ সম্পর্ক সর্বোচ্চ পর্যায়ে রয়েছে বলে মনে করেন। সম্প্রতি বাংলাদেশের সামরিক বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তারা তুরস্ক সফর করেন। এর মধ্যে সেনাপ্রধান এবং নৌবাহিনী প্রধান ছিলেন।

এছাড়া বিভিন্ন মন্ত্রী বিশেষত মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এবং সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা সাম্প্রতিক মাসগুলোতে তুরস্ক সফর করেছেন।

এতে দুই দেশের ব্যবসা এবং প্রতিরক্ষা সেক্টরে সহযোগিতা বেড়েছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে চলতি বছরের শেষ দিকে ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য অনুষ্ঠানে তুরস্কের সংস্কৃতি এবং পর্যটন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের একটি প্রতিনিধি দল সফরের কথা রয়েছে। তুরস্কের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা ঢাকার অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন মর্মে সচিব আশা প্রকাশ করেন।

সচিব খাজা মিয়া বলেন, রোহিঙ্গা সংকটে যে সকল দেশ সাড়া দিয়েছিল আংকারা অন্যতম প্রধান দেশ। দেশটি এখনো ১০ লাখ রোহিঙ্গার প্রবেশকে কেন্দ্র করে সংকটে বাংলাদেশকে সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছে।

মিয়ানমারে নির্যাতনের শিকার হয়ে ২০১৭ সালের আগস্ট থেকে তারা বাংলাদেশে আসা শুরু করে। বিভিন্ন ধরনের সংকটে বাংলাদেশকে সহযোগিতায় এগিয়ে এসেছে তুরস্ক। সচিব বলেন, “আমি মনে করি, দুই দেশের সম্পর্ক আরো দৃঢ় হবে, পিছিয়ে পড়ার সুযোগ নেই।”