নিজস্ব সংবাদদাতা:বরিশালের আগৈলঝাড়ার আস্কর বাজারে হঠাৎ করেই রাতের আঁধারে সরকারি খাস জমি দখল করে স্থানীয় প্রভাবশালী ভূমি দস্যুদের ছয়টি ঘর উত্তোলন। দখলের প্রতিবাদে বাজার ব্যবসায়িদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ। প্রশাসন ও আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দর সরেজমিনে ভূমিদস্যুদের বিচারের আশ্বাসে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুলেছে ব্যবসায়িরা।

সরেজমিনে জানা গেছে, উপজেলার বাগধা ইউনিয়নের নতুন আস্কর কালীবাড়ি স্বাধীনতাত্তোর সময়ে ৬৮শতক সরকারী সম্পত্তির উপর বাজার বসায় স্থানীয়রা। রাস্তার পাশ ও সরকারী জায়গায় প্রচুর ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে ওঠে ওই বাজারে। কালক্রমে সপ্তাহে সেখানে দু’দিন হাট বসে। স্থানীয় গনেশ ওঝা ও ভদ্রকান্ত জেলা প্রশাসকের অনুকুলে বাজারে দান করা জমির মধ্যে ১৯শতকের একটি ডোবা ছিল। বাজারের প্রয়োজনে ২০১১সালে বাগধা ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে সরকারী অর্থায়নে ডোবাটি ভরাট করা হয়। ভরাট করা জায়গায় স্থানীয় ব্যবসায়িরা দোকানের জন্য জায়গা বরাদ্দ চেয়ে ৪/৫ বছর আগে এসি ল্যান্ড বরাবর আবেদন করে। অন্যদিকে বাজারের অপর ব্যবসায়িরা বাজার ব্যবস্থাপনার জন্য টল ঘর নির্মানের দাবি জানিয়ে আসছিলো।
বৃহস্পতিবার ২১ফেব্রুয়ারী ব্যাবসায়িসহ স্থানীয় লোকজন ভাষা শহীদরে প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে শহীদ মিনারে গেলে ওই সুযোগে গভীর রাতে চক্রিবাড়ি গ্রামের সুন্দর আলী হাওলাদারের ছেলে স্থানীয় প্রভাবশালী ভূমি দস্যু মোবারক হাওলাদার ও তার ছেলে মাহাবুব হাওলাদারের নেতৃত্বে ৫০/৬০ জনের একটি ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দল খালি বাজারের ওই ১৯ শতক খালি জায়গার উপর ছয়টি দোকান ঘর নির্মান করে দখল করে।


শুক্রবার সকালে ব্যবসায়িরা ও স্থানীয় জনগন বাজারের জায়গা দখল করে ঘর নির্মান দেখে বিক্ষোভে ফেটে পরে। ব্যাবসায়িরা জায়গা অবৈধ দখলমুক্তর দাবিতে অনির্দ্দিষ্ট কালের জন্য সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে বিক্ষোভ মিছিল করে প্রতিবাদ জানাতে শুরু করে। এক পর্যায়ে রাতের আধারে দখল করা ছয়টি দোকান বিক্ষোভকারীর ভেঙ্গে পাশ্ববর্তি খালে ফেলে দেয়।
খবর পেয়ে উপজেলা সহকারী কমমিশনার (ভূমি) ফাতিমা আজরিণ তন্বী একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে যান। এসময় উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধালন সম্পাদক আবু সালেহ মো. লিটন, বাগধা ইউপি চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম বাবুল ভাট্টি, বাগধা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ইউনুস আলী মিয়া, সাধারণ সম্পাদক বজলুর রহমান হাওলাদার, অশোক মেম্বরসহ সহ¯্রাধিক লোকজন বাজারে জড়ো হয়।
পরে অবৈধ দখল উচ্ছেদ করা যায়গায় ব্যবসায়ি ও সহ¯্রাধিক সাধরন জনগনের সন্মুখে উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ মো. লিটন অবৈধ দখলদারের বিরুদ্ধে উপস্থিত এসি ল্যান্ডকে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানিয়ে যে কোন মূল্যে সরকারী জায়গা বাজারের অনুকুলে রাখার ঘোষণা দিলে উদ্দুদ্ধ পরিস্থিতি শান্ত হয়।
এসি ল্যান্ড উপস্থিত লোকজনকে জানান, দখলদারদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে আইনগত ব্যবস্থঅ নিয়ে তিনি গেলেও দলখদাররা পলাতক থাকায় তা কার্যকর করা সম্ভব হয়নি। তবে তিনি একাধিক দখলদারদের তালিকা প্রনয়ন করেছেন। যাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেবেন বলেও জানান তিনি।

এই বিষয়ে থানায় কোন সাধারণ ডায়রি করা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক আনাদী ওঝা ভয়েজবিডি২৪ কে বলেন, আমার এখনো কোন ডায়রি করি নাই তবে আজ বাজার কমিটির পক্ষ থেকে একটি সাধারণ ডায়রি করা হবে।
সভার সিদ্ধান্ত ক্রমে তিনি বলেন, এই জায়গায় আর কেউ ঘর উঠাতে পারবে না এবং গ্রামবাসীর দাবি অনুযায়ি উক্ত জায়গায় একটি আরচালা তৈরি করা হবে।

ভযেজবিড২৪/স্বপু ওঝা/নাজমুল