ঢাকা ওআইসি ইয়ুথ ক্যাপিটালের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত

ঢাকা, ১০ শ্রাবণ (২৫ জুলাই) :

       আজ জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের অডিটোরিয়ামে Dhaka OIC Youth Capital-2020 International Programme এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের বিস্তারিত গণমাধ্যমের সামনে তুলে ধরতে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, য্বু ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল ও যুব ও ক্রীড়া সচিব মোঃ আখতার হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া  Islamic Cooperation Youth Forum (ICYF) এর প্রেসিডেন্ট তাহা আইয়ান ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে উপস্থিত ছিলেন। উক্ত প্রেস কনফারেন্সে দেশি ও বিদেশি সাংবাদিকবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

       প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ২৭ জুলাই ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে Dhaka OIC Youth Capital-2020 International Programme এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করবেন। উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভার্চুয়াল মাধ্যমে উপস্থিত থাকবেন ওআইসি এর মহাসচিব ইউসুফ বিন আহমেদ আল ওথাইমিন, কাতারের ক্রীড়া ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী সালেহ বিন গানেম আল আলী, আজারবাইজানের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রী আজাদ রহিমভ, আইসিওয়াইএফ এর প্রেসিডেন্ট তাহা আইয়ান ও অন্যান্য বিশ্ব নেতৃবৃন্দ।

       পররাষ্ট্রমন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, গত ১২ এপ্রিল ২০২০ তারিখে Dhaka OIC Youth Capital-2020 এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে আয়োজনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে নির্ধারিত কর্মসূচি স্থগিত হয়। তবে পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে নতুন আঙ্গিকে Dhaka OIC Youth Capital-2020 এর সকল কর্মসূচি বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। সকলের সম্মিলিত সহযোগিতায় মুজিববর্ষে অত্যন্ত জাঁকজমকভাবে সকল কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে হবে বলে তিনি আশাপ্রকাশ করেন।

       সংবাদ সম্মেলনে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সার্বিক পৃষ্ঠপোষকতায় বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা এ বছর ওআইসি যুব রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষে আন্তর্জাতিক এ স্বীকৃতি জাতি হিসেবে আমাদের গর্বিত করে।

       আগামী ২৭ জুলাই বছরব্যাপী বিস্তৃত Dhaka OIC Youth Capital-2020 এর নানা আয়োজনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিশ্বের ৭৫টি দেশের প্রায় বারো শতাধিক তরুণ উক্ত আয়োজনে অংশগ্রহণ করতে অনলাইনে আবেদন করেন। তন্মধ্যে আগামী ২৭ ও ২৮ জুলাই ডিজিটাল প্লাটফর্মে অনুষ্ঠিত Resilient Youth Leadership Summit এ ২৫০ জন যুবক অংশগ্রহণ করবে।

       প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, এ আয়োজনের মাধ্যমে বিশ্বে আমাদের যুবসমাজের অমিত সম্ভাবনা তুলে ধরা হবে। আমরা বর্তমানে ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ড এর সুবিধা ভোগ করছি। আমাদের মেধাবী ও দক্ষ যুব শক্তি রয়েছে। এছাড়াও রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে বাংলাদেশ সরকার যে মানবিক সহায়তা করছে সেটিও বিশ্ববাসীর কাছে উপস্থাপন করা হবে।