ঢাকাসহ সারাদেশে কসমেটিকসসহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের বাজারে অভিযান: ৬ লক্ষ ৬১ হাজার ৫ শত টাকা জরিমানা
২৮ জুলাই ২০২০:
ঢাকাসহ সারাদেশে কসমেটিকসসহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের বাজারে অভিযান পরিচালনা ও কোরবানির পশুর হাটে সচেতনতামূলক প্রচারণা ; ১৩০টি প্রতিষ্ঠানকে ৬ লক্ষ ৬১ হাজার ৫ শত টাকা জরিমানা।
২৮ জুলাই ২০২০:
বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের উদ্ভূত পরিস্থিতি ও আসন্ন ঈদ উপলক্ষে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল ও সহনীয় রাখাসহ নকল ও ভেজাল প্রতিরোধ এবং কোরবানির পশুর চামড়া যথাযথভাবে সংরক্ষণ ও ন্যায্যমূল্যে চামড়া ক্রয় বিক্রয়ের জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়াধীন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কর্তৃক ঢাকাসহ সারাদেশে বাজার তদারকিমূলক কার্যক্রম পরিচালিত হয়।
নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের বাজার স্থিতিশীল রাখতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মানিত সচিব ড. মোঃ জাফর উদ্দীন এর নেতৃত্বে গঠিত টাস্কফোর্স কমিটির পরামর্শ ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বাবলু কুমার) সাহা এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কোরবানি পশুর চামড়া মনিটরিং সংক্রান্ত সভার সিদ্ধান্তক্রমে ঢাকাসহ সারাদেশে ৮৩টি বাজারে (পাইকারি ও খুচরা) তদারকিমূলক অভিযান পরিচালনা করা হয়। তদারকিকালে পণ্যের মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করা, অধিকমূল্যে পণ্য/ঔষধ বিক্রয় করা, মেয়াদোত্তীর্ণ ও নকল পণ্য/ঔষধ বিক্রি করাসহ ভোক্তাস্বার্থ বিরোধী বিভিন্ন অপরাধে প্রশাসনিক ব্যবস্থায় ১৩০ টি প্রতিষ্ঠানকে সর্বমোট ৬ লক্ষ ৬১ হাজার ৫ শত টাকা জ‌রিমানা করা হয়।
পরিচালক (কার্যক্রম) মহোদয়ের সার্বিক তত্বাবধানে ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন বাজারে এ অভিযান পরিচালনা করেন প্রধান কার্যালয়ের উপপরিচালক মোঃ মাসুম আরেফিন, বিকাশ চন্দ্র দাস, ঢাকা জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আব্দুল জব্বার মন্ডল ও ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মাগফুর রহমান।
এছাড়া ঢাকার বাইরে ৪১ জন কর্মকর্তা বিভাগে উপপরিচালক ও জেলায় সহকারী পরিচালকগণের নেতৃত্বে বাজার অভিযান পরিচালিত হয়।
এছাড়াও টিসিবির ন্যায্য মূল্যের ট্রাকসেল তদারকি করা হয়।
এ প্রসঙ্গে অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জনাব বাবলু কুমার সাহা আসন্ন ঈদে সঠিক পদ্ধতিতে কোরবানির পশুর চামড়া ছাড়ানো ও সংরক্ষণ করতে এবং সরকার নির্ধারিত মূল্যে চামড়া ক্রয় বিক্রয় করতে সংশ্লিষ্ট সকল অংশীজনকে আহবান জানান।
এছাড়াও ঈদকে সামনে রেখে মসলাজাতীয় পণ্যসহ সকল ধরনের নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য, কসমেটিকস ও ঔষধ যৌক্তিক মূল্যে বিক্রয় করার জন্য ও ভোক্তাস্বার্থ সংরক্ষণে ভোক্তা অধিকার বিরোধী কার্য করা হতে বিরত থাকতে সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ করেন।
করোনা পরিস্থিতিতে দেশের সকল কোরবানির পশুর হাটে ভোক্তা সাধারণ ও ব্যবসায়ীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাজারে পশু ক্রয় বিক্রয়ের উদাত্ত আহ্বান জানান।